আবারও চীনা টিকা পরীক্ষার প্রস্তাব জানিয়েছেন

12

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাসের টিকার তৃতীয় ধাপের পরীক্ষা মূলক প্রয়োগের (ট্রায়াল) প্রস্তাব দিয়েছেন চীনের একটি প্রতিষ্ঠান। টিকার পরীক্ষার সহ সব ধরনের খরচও বহন করবে প্রতিষ্ঠানটি। পরীক্ষা সফল হলে তারা বাংলাদেশে টিকার গবেষণার পাশাপাশি টিকা উৎপাদনের কারখানা স্থাপনেরও উদ্যোগ নেবে বলে জানিয়েছেন।

টিকার পরীক্ষা, গবেষণা ও উৎপাদনের কারখানা স্থাপনের প্রস্তাবটি দিয়েছে চীনের আনুই জিফেই লংকম বায়োফার্মাসিউটিক্যাল কোম্পানি লিমিটেড। এটি চংকিং জিফেই বায়োলজিক্যাল প্রডাক্টস লিমিটেডের সহযোগী প্রতিষ্ঠান। এর আগের চীনের টিকা উদ্ভাবন ও প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান সিনোভ্যাক তাদের টিকার পরীক্ষার প্রস্তাব দিয়েছিল। কিন্তু পরীক্ষায় অর্থায়ন-জটিলতায় সেই উদ্যোগ এগোয়নি তারা।

জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগনিয়ন্ত্রণ শাখার সাবেক পরিচালক বে-নজির আহমেদ বলেন, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ এখনো কমেনি বরং আরো বেড়েছে। সংখ্যার ওঠানামা হলেও সংক্রমণ অব্যাহত রয়েছে। কাজেই সামাজিক সংক্রমণের বিষয়টি বিবেচনায় নিলে টিকার পরীক্ষার জন্য বাংলাদেশ এ মুহূর্তে উপযুক্ত ক্ষেত্র। আর টিকার পরীক্ষা হলে লাভ ছাড়া কোনো ক্ষতি নেই। তিনি মনে করেন, বাংলাদেশে টিকার পরীক্ষা হলে জানা যাবে, সেটি এখানে কতটা কার্যকর হবে। পাশাপাশি বাংলাদেশের টিকা পাওয়ার অধিকারও নিশ্চিত হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন