চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক আল মামুনের খেটে খাওয়া মাুনষদের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ

স্টাফ রিপোর্টার : বিশ্বব্যাপী করোনাভাইরাস এর প্রভাবে দৈনন্দিন খেটে-খাওয়া নিম্ন আয়ের মানুষগুলো যখন ঘর থেকে বের হতে পারছে না তখন মানুষ অনাহারে থাকার আশঙ্কা থেকে মুক্ত করতে সমাজের বিত্তবান সামাজিক ব্যক্তিরা নানা রকম কার্যক্রম হাতে নিয়ে খেটে খাওয়া মানুষদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। ব্রাহ্মণবাড়িয়া চেম্বার অব কমার্সের পরিচালক, জেলা ক্রিড়া সংস্থার কার্যনির্বাহী সদস্য ও জগৎ বাজার ব্যবসায়ী কমিটির সাধারণ সম্পাদক আল মামুন তাঁর নিজ উদ্যোগে মধ্যপাড়া পাঁচ নাম্বার ওয়ার্ডে খেটে খাওয়া অসহায় মানুষদের তিনি গত ২৯মার্চ  রবিবার থেকে আজ অব্দি প্রায় ছয় শতাধিকের অধিক পরিবারকে নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যদিখাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছেন। তিনি দেশের যে কোন ক্রান্তিলগ্নে সমাজের অসহায় মানুষদের পাশে থাকেন।

এমন সহযোগিতা পেয়ে অসহায় ভ্যান চালক রমজান আলীসহ অনেকেই বলেন, আমরা নিন্ম আয়ের খেটে খাওয়া মানুষ, কাজ করে খাই। কাজ না করলে পরিবার নিয়ে উপোস থাকতে হয়। আল্লাহ্ এমন রোগ দিছেন যে রোগে ঘর থাইকা বাইর হইলেই রোগ হওয়ার ডর লাগে। কাজ কামে যাইতে পারি না। কাজ কামে না গেলে খামু কুত্থাইক্কা। তাইনে আমরারে চাইল, ডাইল, আলু, পিঁয়াইজ, তেল, আটাসহ নানা কিছু দিছে। পরিবারের বউ বাচ্চা লইয়া কিছুদিন থাকতে পারুম। এইগুলো পেয়ে অনেক ভাল লাগছে। এই করোনা রোগ যদি আরো বেশিদিন থাকে তাইলে বাকি দিন কেমনে চলুম।

এ বিষয়ে আল মামুন বলেন, আমাদের দেশে এখন করোনা নামক ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ভয়ে মানুষ ঘর থেকে বের হতে পারছে না। ফলে দেখা গেছে তাদের আয়ের উৎস একেবারেই বন্ধ রয়েছে। এমতাবস্থায় তারা তাদের পরিবার নিয়ে উপোস থাকবে তা ভাবলে খুবই খারাপ লাগে। আমার সাধ্য অনুযায়ী অসহায় পরিবারকে কিছু খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেছি।

আমাদের সরকার দেশনেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেত্রিত্বে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। আমার চেয়ে যারা বেশি বিত্তবান তারা এ মুহুর্তে অসহায় মানুষদের পাশে এসে দাঁড়ানোর জন্য আহবান করছি। আমরা সবাই যার যার সামর্থ অনুযায়ী তাদের পাশে দাঁড়াই। তিনি বলেন আমার এই মহত কাজের যারা অক্লান্ত পরিশ্রম ও সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি আমি অনেক কৃতজ্ঞ। মহান আল্লাহ তায়ালা সবাইকে হেফাজত করুন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন