নবীনগরে সরকারি ১০ টাকা কেজির ৪০০ বস্তা চাল নিয়ে নৌকাডুবি

 

নবীনগর: ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগর তিতাস নদীতে বুধবার  (৮এপ্রিল) দুপুরে সরকারি ১০ টাকা কেজি দরের ৪০০ বস্তা চাল নিয়ে একটি নৌকা ডুবে গেছে। নদী থেকে চালের বস্তা উদ্ধারের কাজ চলছে।

জানা গেছে, সরকারের খাদ্য বান্ধব কর্মসূচির আওতায় হতদরিদ্রদের মাঝে ১০ টাকা কেজি দরে বিক্রির জন্য (প্রত্যেকে ৩০ কেজি করে পায়)  আজ দুপুর আনুমানিক ১২ টার দিকে সদরের মাঝিকাড়া খাদ্যগুদাম থেকে  দুটি  ইঞ্জিন চালিত নৌকায় করে ৫২৮ বস্তা চাল উপজেলার বীরগাঁও ইউনিয়নে নেয়া হচ্ছিল। কিন্তু নৌকা দুটি কিছু সময় পরই সদরের স্পীডবোট ঘাটের কাছে পৌঁছুলে ৪০০ বস্তা (১২ টন) বোঝাই থাকা নৌকাটি  আচমকা তিতাসে ডুবে যায়।

খবর পেয়ে নবীনগরের উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মনিরুজ্জামান, মেয়র অ্যাডভোকেট শিব শংকর দাস, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম, ওসি রনোজিত রায়সহ উর্ধতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কার্যক্রম চালায়।

চালের ডিলার বীরগাঁওয়ের বাসিন্দা জিয়া উদ্দিন আহমেদ বলেন, “নৌকা দুটিতে আমার দ্বিতীয় কিস্তির ১৬ টন চাল ছিল। এর আগে প্রথম কিস্তিতে নেয়া ১৬ টন চাল হতদরিদ্রদের মাঝে ১০ টাকা কেজি দরে বিক্রী করেছি। কিন্তু ১২ টন ডুবে যাওয়ায় কয়েকগুণ বেশী দামে চাল কিনে এখন আমাকে ১০ টাকা কেজি দরেই চাল দরিদ্রদের মাঝে বিক্রী করতে হবে।”

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাসুম বলেন, “ডুবে যাওয়া চাল উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। তবে ডিলারকে এখন বাজার থেকে  চাল কিনে যথাসময়ে দরিদ্রদের মাঝে ১০ টাকা কেজি দরেই বিক্রী করতে হবে। এর ব্যত্যয় ঘটলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।”

সাংবাদিক গৌরাঙ্গ দেবনাথ অপু, বিশিষ্ট কলামিস্ট

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন