নাটাই (দ.) ইউনিয়নের প্রচার বিমুখ সৌদি প্রবাসীর হাজার পরিবারকে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনাভাইরাস আতঙ্কে দেশে আজ এক মাস মানুষ গৃহ বন্দী হয়ে আছে। করোনা সংক্রমণের হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য সারা দেশ লকডাউন থাকায় কর্মজীবি মানুষ এখন কর্মহীন হয়ে পড়েছে। এর ফলে যারা দিনাতিপাত করে জীবিকা অর্জন করে তারা আজ বিপাকে। তাদের সংসারে চুলা জ্বালানোই এখন দায় হয়ে পড়েছে। এরই মাঝে বাংলাদেশ সরকার মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কর্মহীনদের ঘরে ঘরে খাদ্য পৌঁছানোর ব্যবস্থা করেছেন। পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানরাও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর ৩ আসনের সংসদ সদস্য র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর আহবানে সাড়া দিয়ে রাজনৈতিক নেতা থেকে শুরু করে সমাজপতিরাও আজ কর্মহীন মানুষদের পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন।

এর থেকে পিছিয়ে নেই নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের জনবান্ধব চেয়ারম্যান নাজমুল হক। নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদে সরকারি বরাদ্দকৃত খাদ্য ও নগদ ৫০০ শত টাকা গরীবদের মাঝে বিতরণ করেছেন।

শুধু তাই নয়, তিনি সমাজের বিত্তবানদেরকেও এগিয়ে আসার আহবান করেন। তার আহবানে সাড়া দিয়ে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সৌদি প্রবাসীর অনুদানে নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়নের ৯টি ওয়ার্ডের এক হাজার হত দরিদ্র কর্মহীনদের মাঝে রমজানের খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করা হয়।

শুক্রবার (২৪এপ্রিল) সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায় নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হতদরিদ্রদের মাঝে ব্যক্তি উদ্যোগে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছেন।

রমজান মাসের খাদ্যসামগ্রী পেয়ে ৪ নং ওয়ার্ডের নরসিংসার উত্তর পাড়ার ৬০ বছর বয়সী জনাব ফারুক মিয়া জানান, করোনাভাইরাস আতঙ্কের কারণে ঘর থেকে বের হতে পারি না, শহরে যেতে পারি না, ঘরে খাবার নাই, ছেলে মেয়েদের মুখের দিকে তাকাতে পারিনা। আজকে আমাদের ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের মাধ্যমে বিদেশি একজন লোক আমাদের রমজান মাসের খাদ্যসামগ্রী উপহার দিয়েছেন। এ রমজানে এগুলো খেয়ে রোজা রাখতে পারবো এবং ইফতার করতে পারবো। আমি আজ অনেক খুশি। আল্লাহ্ ঐ বিদেশি লোকটাকে যেন নেক হায়াত দান করেন। আল্লাহ্ যেন আমাদের চেয়ারম্যানকেও বাঁচিয়ে রাখুন।

এ বিষয়ে নাটাই দক্ষিণ ইউনিয়ন পরিষদের জনবান্ধব চেয়ারম্যান মো. নাজমুল হক বলেন, আমরা আজ বিশ্ব ক্রান্তিলগ্নে বসবাস করছি। দিনদিন মানুষ নিমজ্জমান হয়ে যাচ্ছে। জানিনা এমন অদৃশ্য মহামারী পরিস্থিতি কতদিন থাকবে।

আমাদের জনবান্ধব সরকার বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও সদর ৩ আসনের সংসদ সদস্য জননেতা, মাটি ও মানুষের নেতা র.আ.ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর আহবানে সাড়া দিয়ে আমরা খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করছি। আমাদের ইউনিয়নের একজন সৌদি প্রবাসী ব্যক্তি নাম প্রকাশ করতে তিনি অনাগ্রহ দেখিয়েছেন। তাকে যখন আমার দেশের পরিস্থিতি এবং আমার ইউনিয়নবাসীর সার্বিক পরিস্থিতির কথা বল্লাম তখন তিনি তার নাম প্রকাশ না করার শর্তে তার ব্যক্তি উদ্যোগে ১১ লক্ষ টাকা অনুদান দিয়েছেন যেন, আমার ইউনিয়নের অসহায় কর্মহীন কর্মজীবিদের মাঝে বিতরণ করতে পারি। গরীবের মাঝে হাসি ফোটাতে পারাই ছিল আমার লক্ষ। আজ তারা এসব পেয়ে মহা খুশি। তাদের চোখে মুখে আনন্দের হাসি ফুটেছে।

সমাজে এমন দয়াশীল ব্যক্তি খুবই কম যারা নাম প্রচার করে না। তার এই অনুদানে আমি আজ গর্ববোধ করছি। তার এই  মহানুভবতার জন্য কৃতজ্ঞতা জানাই। তার জন্য ইউনিয়নবাসীর পক্ষ থেকে দোয়া করি তিনি যেন দীর্ঘায়ু লাভ করেন। আল্লাহ্ তাকে নেক হায়াত দান করুন। গত তিন দিন যাবৎ আমার ইউনিয়নের এক হাজার হতদরিদ্র অসহায় পরিবারের মাঝে এই খাদ্যসামগ্রী বিতরণ করেছি।

খাদ্যসামগ্রীর মাঝে রয়েছে, ৮কেজি চাল, ৪কেজি আটা, ৩কেজি আলু, ২কেজি পেঁয়াজ, ২কেজি ছুলা বুট, ২লিটার সয়াবিন তেল, ১কেজি মসুরির ডাল ও একটি সাবান। জনপ্রতি এগারোশত টাকা করে প্যাকেট খরচ হয়েছে। তিনি সকললেকই ঘরে থাকার জন্য আহবান করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন