ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় দোকান পাট এবং শপিংমল খোলা হবে না।

চেম্বার ভবনে মতবিনিময় সভায় আলহাজ্ব আজিজুল হক ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষকে সুরক্ষার জন্য পবিত্র ঈদকে সামনে রেখেও জেলায় দোকান পাট এবং শপিংমল খোলা হবে না গতকাল শুক্রবার বেলা ১১টায় ব্রাহ্মণবাড়িয়া চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি’র কার্যালয়ে বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ার সাংবাদিক এবং বিভিন্ন মার্কেট কমিটির নেতৃবৃন্দদের নিয়ে এক মতবিনিময় সভায় অনুষ্ঠিত হয়। সভায় চেম্বার সভাপতি এবং এফবিসিসিআই এর পরিচালক আলহাজ্ব আজিজুল হক বক্তব্যে বলেন, ঈড়ারফ-১৯ করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাবে সারা বিশ্বে মহামারি আকারে বিস্তার লাভ করেছে।

বাংলাদেশে বর্তমানে এ ভাইরাসের আক্রমণের ফলে জীবনযাত্রা প্রায় স্থবির হয়ে পড়েছে। জনগণকে এ ভাইরাসের হাত থেকে রক্ষার জন্য সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। সে প্রেক্ষিতে সরকার করোনা ভাইরাস মহামারি আকারে বিস্তার রোধকল্পে গত ২৬ মার্চ ২০২০ থেকে পর্যায়ক্রমে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করেছেন যা আগামী ১৬ মে ২০২০ পর্যন্ত বলবৎ আছে। পরবর্তী পর্যায়ে পবিত্র ঈদকে কেন্দ্র করে সীমিত আকারে দোকান পাট এবং শপিংমল আগামী ১০ মে ২০২০ তারিখ থেকে শর্ত সাপেক্ষে খোলার অনুমতি প্রদান করেছেন। গত ০৭ মে, বৃহস্পতিবার ২০২০, দুপুর ১২ ঘটিকার সময় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসক হায়াত উদ দৌলা খাঁন ব্রাহ্মণবাড়িয়া চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাষ্ট্রি এবং বিভিন্ন মার্কেট কমিটির নেতৃবৃন্দের সাথে এক সভা আহবান করেন। উক্ত সভায় ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান, সেনা বাহিনীর প্রতিনিধি, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আল মামুন সরকার ও প্রশাসনের অন্যান্য প্রতিনিধিগণসহ বিভিন্ন মার্কেট কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ অন্যান্য ব্যবসায়ীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উক্ত সভায় ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে দোকান পাট ও শপিংমল খোলার বিষয়ে আলোচনা হয়। আলোচনান্তে ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে বলা হয়, কাপড়, জুতা ও ঈদকে কেন্দ্র করে সাধারণত ব্যবসায়ীরা ব্যবসা করে থাকে। সারা বছর তাদের তেমন কোন ব্যবসা বাণিজ্য থাকে না। এছাড়া ব্যবসায়ীরা পবিত্র ঈদকে কেন্দ্র করে কাপড়, জুতা ও ঈদ কেন্দ্রীক পণ্য সামগ্রী স্টক করে থাকে। বর্তমানে সরকার ঘোষিত সাধারণ ছুটি এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে লকডাউনের ফলে শুরু থেকেই ব্যবসা বাণিজ্য বন্ধ। এতে বিশেষ করে কাপড়, জুতা ও ঈদ কেন্দ্রীক ব্যবসায়ীরা আর্থিকভাবে মারাত্মক ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছেন। উক্ত সভায় বিভিন্ন মার্কেট কমিটির সভাপতি/সাধারণ সম্পাদকের মতামতের ভিত্তিতে সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে, সরকারের পক্ষ থেকে দোকান পাট ও শপিংমল সীমিত আকারে শর্ত সাপেক্ষে খোলার অনুমতি দেওয়া সত্বেও, ব্যবসায়ীদের বিপুল পরিমাণ আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন ও শুধুমাত্র জনগণের সুস্বাস্থ্য এবং ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে করোনা ভাইরাস প্রাদুর্ভাব রোধকল্পে আগামী ১০ মে ২০২০ থেকে ব্রাহ্মণবাড়িয়াতে দোকান পাট এবং শপিংমল খোলা হবে না। এ অবস্থায় আমরা মনে করি, ব্যবসায়ীরা ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসীর বৃহত্তর স্বার্থে তাদের আর্থিক ক্ষতি হওয়া সত্বেও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার মানুষকে সুরক্ষার জন্য তাদের অধিকারকে বিসর্জন দিয়েছেন।

চেম্বার সভাপতি আলহাজ্ব আজিজুল হক এই মতবিনিময় সভার মাধ্যমে গত ০৭ মে ২০২০ তারিখে জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বিভিন্ন মার্কেট কমিটির সভাপতি/সাধারণ সম্পাদকের মতামতের ভিত্তিতে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় দোকান পাট এবং শপিংমল খোলা হবে না মর্মে সিদ্ধান্ত সমূহ আনুষ্ঠানিকভাবে সকলকে জানিয়ে দেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সহ-সভাপতি মোঃ শাহজাহান মিয়া, পরিচালক আলহাজ্ব মমিনুল আলম বাবু, আলহাজ্ব মোঃ শাহ আলম, তানভীর আহমেদ, মোঃ নুরুজ্জামান ভূঁইয়া, আবুল খায়ের, মোঃ আব্দুল মালেক ও চেম্বার সচিব মোঃ আজিম উদ্দিন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন